স্বপন চৌধুরী'র লেখা ৫ টি কবিতা

কবি স্বপন চৌধুরী'র ৫ টি কবিতা। Tech Osman

স্বপন চৌধুরী'র লেখা ৫ টি কবিতা


অসমাপ্ত মিস্টি যন্ত্রণা

স্বপন চৌধুরী


বিশ্বাস কর মোরে,আমি মিথ্যে বলিতেছি না,
আজি বলিব আমি প্রানের সব কথা।

বিশ্বাস কর মোরে দীর্ঘশ্বাস ফেলিয়া বলিতেছি,
আজি বলিব আমি প্রানের সব কথা।

হায়রে কপাল হায়রে কেও কি মোরে সান্ত্বনা দিবে,
মনের মানুষ পাইব কবে।

আজ মন যে আমার উতলা হাশিয়া কাটিল দুই বেলা,
গোলাপ চারায় ফুটিল ফুল,
তাই দেখিয়া মন ব্যকুল,
 ফুল দিব কার সনে বন্ধু নাই মোর মনে।

চারার গোরায় জল ঢালিলাম,
বিশ্বাস কর মোরে আমি মিথ্যে বলিতেছি না ,
দশখানা ফুল ফুটিল মোর গোলাপ চারায়,
মন যে আমার থাকেনা ঘরে ঘুরে পাড়ায় পাড়ায়।

বিশ্বাস কর মোরে আমি মিথ্যে বলিতেছি না,
অবেলায় আমি ছাদের পারে একি দেখিলাম চোখে,
বাদলে গেল ঝরে তবে কি আসবে না মনের মানুষ বসবে না মোর পাশে।

বিশ্বাস কর আমি মিথ্যে বলিতেছি না,
এমন যদি হত প্রিয় রমণি মুছকি হাশিয়া,
পানের খিলি মুখে দিত তুলিয়া,কতই না ভালো হত৷

কিন্তু পাইব কোথায় সেই অচেনা রমণি,
কেও কি মোরে সান্ত্বনা দিবে প্রানের মানুষ পাইব কবে।

বিশ্বাস কর মোরে আমি মিথ্যে বলিতেছি না।



নিশাচর আমি

স্বপন চৌধুরী

নিশাচর পাখি আমি রাত্রি বেলা জাগি,
অপরাধি সেই জানালার পাশে একা বসে থাকি।

চশমার আড়ালে প্রিয় মুখ পাগল আমার দুটি আঁখি,
কত যে বাহানা দেখিতে প্রিয় মুখ।

দ্বিপ্রহর বেলায় যাত্রায় নামিলাম তিন চাকার মটরে,
প্রেম বাসনায় মজিলাম,তুলার হাতটা ধরিলাম।
আকাশ কুসুম ভাবিয়া,সুখের সন্ধানে স্বপ্নেরা উঠিল হাসিয়া।

অযথা ভেবে বাম চোখ উঠলো কেপে,
বারুদের গন্ধে ঘুরিল মাথা ঘুচিলাম আমার দুখের পাতা,
ঘামিল কপাল টিস্যুরে বানাইয়া রুমাল মুছিলামম কপালের ঘাম।

মাদ্রাসার গলিতে ছোট ইস্মাইল গেল হেটে,কলিজা গেল ফেটে,
মুখে ঝাপটা দাড়ি,ধুম্পানের ধোয়ায় অযথায় ঘুম মারি।

রোদে পুরে ফরসা মুখে লাগলো কালি,হটাৎ ১২ তারিখ,
কাকের ঠোঁটে পাইলাম চিঠি,
প্রিয়ার অঙ্গে কাচা হলুদ,লাল ঘোমটায় পেছিয়ে মুখ,
মরিচ বাতি আনিল,বুকে তীর হানিল,সুখের সমাপ্তি ঘটিল।


প্রকাশ করুন আপনার লেখা

উত্তপ্ত জাদুঘর

স্বপন চৌধুরী

আমি নিশ্চুপ শহরে নিরঝুম প্রহরে ধুধু বালুচর,
একা একা বসে ভাবি ক্লান্তি সময়,
ইট ভাটার জলন্ত আগুন উত্তপ্ত চাবুক কলিজায় তীর মারে,
গগনে ঢেকে দিল কালো মেঘের ভেলা,
ক্ষনিকের কাছে আসা,অবহেলায় ভেঙে জাওয়া বাবুই পাখির বাসা।

গাংচিল এর মুখে প্রিয় ময়না আছে সুখে,
ধন রত্নে লভিয়া ময়না আদার ছারিল আমার।
তাই তো আজ হাহাকার বালুচর উত্তপ্ত জাদুঘর,
রাত্রি জাগা প্রহর ময়না পাখির আচড়।

সরিষার ফুলে জমাইলাম মধু পান করিব শীতে,
জোস্নার আলোতে এক পয়া তারিতে ঘুম ঘুম চোখে গাংচিল আসিয়া মধু নিল লুকাইয়া পান করিল নিশিতে।

শুভ যাত্রা ফেছবুক

স্বপন চৌধুরী

শুভ যাত্রা ফেছবুক আবার আসলাম ফিরে,
রাস্তার ধারে ট্রাফিক জামের মোরে।

অভ্যাস হয়ে গেছে ৫ মিনিট করে,
হঠাৎ!! মামা মামা বেলিফুল মাত্র ১০ টাকা,
মুছকি হাসিয়া বল্লাম বেলিফুল দিব কারে।
মনের মানুষ নাই ঘরে,মনটা আমার আনচান করে,মনের মানুষ পাইব কবে।

ভোরের কোকিলা রে

স্বপন চৌধুরী

আর কত থাকিব একেলা,কাটেনা দ্বিপ্রহর বেলা,
নিশিরাতে স্বপ্নিল মোরে অচেনা রমণীর ঘোরে,
রক্ত গোলাপ লইয়া হস্তে মিষ্ট সুরে ডাকিল,
ওগো প্রিয়তম আসিয়াছি আমি খোল খোল আখি খোল,

থমকে আমি জাগিয়া উঠিলাম,হুল্কা খুলে বাহির হইলাম।
একি প্রিয়তমা মোর মিশিল কই,
ভোরের কোকিল হাসিয়ে কয়ে মোরে,,
যৌবনও ফুরাইয়া গেল আসিল না প্রিয়া ঘরে।

Follow us on fb:  Tech Osman

Newest
Previous
Next Post »

2 মন্তব্য(গুলি)

Click here for মন্তব্য(গুলি)
Unknown
admin
September 13, 2019 at 8:56 AM ×

অসাধারণ প্রতিভা

Reply
avatar
Unknown
admin
September 13, 2019 at 8:56 AM ×

অসাধারণ প্রতিভা

Reply
avatar